সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাঁও ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামের বসতঘর থেকে এক মহিলার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে দোয়ারাবাজার থানা পুলিশ।

নিহত ঐ মহিলার নাম আফিয়া বেগম (৪২)। সোমবার বিকাল ৫টার দিকে তার বসতঘর থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বিকাল ৪টার দিকে আফিয়া বেগমের ছেলে সবুজ (২৪) বসতঘরের খাটের ওপর মায়ের গলাকাটা লাশ রয়েছে বলে প্রতিবেশীদের জানায়। প্রতিবেশিরা আফিয়া বেগমের গলাকাটা লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

এসময় পারিবারিক কলহের জেরে ছেলে কর্তৃক এই হত্যাকান্ড সংঘটিত হতে পারে এমন সন্দেহে ছেলেকে আটকে রেখে পুলিশে সোপর্দ করেন প্রতিবেশীরা।

মান্নারগাঁও ইউনিয়নের ৪ নম্বরও ওয়ার্ড সদস্য মিনার উদ্দিন জানান, সৌদি আরব-ফেরত আফিয়া বেগম ছেলে সবুজকে নিয়ে গ্রামের বাইরে নতুন একটি বাড়ি তৈরি করে বসবাস করতেন। গলাকাটা অবস্থায় আফিয়ার লাশ ঘরে থাকা অবস্থায় দরজা বাহির থেকে তালাবদ্ধ ছিল। পুলিশ ছেলে সবুজের কাছ থেকে চাবি নিয়ে দরজা খুলে লাশ উদ্ধার করে।

দোয়ারাবাজার থানার ওসি সুশীল রঞ্জন দাস জানান, খবর পেয়ে পুলিশ বসতঘর থেকে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করার পর ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহত আফিয়া বেগমের ছেলে সবুজকে আটক করা হয়েছে।

শেয়ার করুনঃ