নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুশিয়ারা তীরবর্তী আছিরগঞ্জ বাজারের ব্যস্ততম একটি সড়কের মধ্যখানে দাঁড়িয়ে আছে বিপদজনক বৈদ্যুতিক খুঁটি। গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি আছিরগঞ্জ-দেবারাইসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের যাতায়াতের প্রধান সড়ক। ব্যস্ততম এ সড়কে বিপদজন বৈদ্যুতিক খুঁটি দাঁড়িয়ে থাকায় ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে হাজারো মানুষ, শিক্ষার্থী ও যানবাহন।

সড়কটি গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার উপজেলা নিয়ে গঠিত আছিরগঞ্জ বাজারের প্রধান একটি সড়ক। এ সড়কটি দিয়েই বিয়ানীবাজারের তিলপাড়া ইউনিয়ন, বারইগ্রামসহ বেশ কয়েকটি এলাকার যাতায়াত।

তাছাড়া, আছিরগঞ্জ বাজার দুটি উপজেলা নিয়ে গঠিত প্রাচীন জনপদ হওয়ায় এখানে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের লোক সমাগম ঘটে। এখানে রয়েছে একটি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, রয়েছে একটি মাদ্রাসা, প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কে.জি স্কুল।

তাই, এখানকার জনগণ, যানবাহন ও শিক্ষার্থীদের অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে এ বৈদ্যুতিক খুটির পাশ দিয়ে যাতায়াত করতে হয়। ফলে যেকোন সময় হতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

স্থানীয়রা জানান, ব্যস্ততম এ রাস্তার মধ্যস্থানে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে বৈদ্যুতিক এ খুঁটিটি। বিষয়টি পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তারা সরেজমিনে উপলব্ধি করলেও গুরুত্বসহকারে দেখছেন না। তাই বাধ্য হয়েই ঝুঁকি নিয়ে এ সড়ক দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ছাত্রলীগ নেতা আজাদ জিসান একটি ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ এ বিষয়টি তুলে ধরেন।
তিনি জানান, উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকার এ সড়কটি এখানকার মানুষের যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম। এ সড়কের প্রায় মাঝামাঝি স্থানে বৈদুতিক খুঁটিটি দীর্ঘদিন ধরে পড়ে আছে। স্থানীয় এলাকাবাসীর জনদুর্ভোগ লাঘবে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সাথে বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থানান্তরের ব্যাপারে আলাপ করবেন।

এ ব্যাপারে বিয়ানীবাজার পল্লীবিদ্যুৎ জোনাল অফিসের ডিজিএম অভিলাষ চন্দ্র পাল বলেন, স্থানীয় এলাকাবাসীর কাছ থেকে আমরা এরকম কোন অভিযোগ পাইনি। তবে সম্প্রতি হাইকোর্টের নির্দেশনানুযায়ী অতি শীঘ্রই বিয়ানীবাজার উপজেলার বিভিন্ন সড়কের মধ্যে থাকা ঝুকিপূর্ণ বৈদ্যুতিক খুটিগুলো স্থানান্তর করা হবে।

শেয়ার করুনঃ