সিঙ্গাপুরের মাউন্টএলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থার ক্রমশ উন্নতি হচ্ছে। তার শারীরিক সব প্যারামিটার ভালোর দিকে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে মেডিকেল বোর্ড।

বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক এবং নিওরোলজিস্ট প্রফেসর ডা. আবু নাসার রিজভী এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘বুধবার সিঙ্গাপুরের স্থানীয় সময় দুপুর ১২টার দিকে মাউন্টএলিজাবেথ হাসপাতালের মেডিকেল টিমের সঙ্গে বসেছিলাম। দ্বিতীয়বারের মতো ওবায়দুল কাদেরের সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা নিয়ে ব্রিফ করেন পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ডের প্রধান ডা. ফিলিপ কোহ। এ সময় বোর্ডের অন্য সদস্যরাও তার সঙ্গে ছিলেন।’

ডা. ফিলিপ কোহের বরাত দিয়ে ডা. আবু নাসার রিজভী বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আমাদের মাননীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাহেবের সব প্যারামিটারসগুলো দিন দিন ভালোর দিকে যাচ্ছে। উনার কিডনি এখন খুব স্ট্যাবল আছে। ইনফেকশন অনেক কমে গেছে। ব্লাড টোন এখন ১২ হাজারে চলে এসেছে, ইউরিন আউটপুটও ভালো আছে।

হার্টের কন্ডিশন, প্রেসার এবং হার্টবিট খুব ভালা আছে। তারা (হাসপাতালের মেডিকেল বোর্ড) আগামী দুই-এক দিনের ভিতর উনার যে আর্টিফিশিয়াল ডিভাইসগুলো আছে সেগুলো খুলে ফেলার চিন্তা করছেন। হয়তো কালকে কিছু খুলে ফেলবেন এবং আগামী শুক্রবার বাকিগুলো হয়তো খুলবে।’

এরআগে মঙ্গলবার সকালে সেতুমন্ত্রীর সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা নিয়ে ব্রিফ করেন তার চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা।

রোববার ভোরে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওবায়দুল কাদেরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার হৃদযন্ত্রে তিনটি ব্লক ধরা পড়ে এবং একটিতে তাৎক্ষণিকভাবে রিং পরানো হয়। এরপর অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও ঘণ্টা দুয়েক পর কাদেরের অবস্থার অবনতি হতে থাকে।

এ সময় তাকে দেখতে হাসপাতালের যান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হাসপাতালে ভিড় জমান আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে বিএনপির সিনিয়র নেতারাও তার খোঁজ নিতে হাসপাতালে যান।

সোমবার ভারতের বিখ্যাত চিকিৎসক দেবী শেঠি বাংলাদেশে এসে কাদেরের শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনা করে তাকে সিঙ্গাপুরে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন। ওই দিন বিকেলেই এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে সিঙ্গাপুরে নিয়ে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শেয়ার করুনঃ