ওসমানীনগরে ৬ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ করেছে কটাই মিয়া(৪০) নামের এক লম্পট। গত ২৩ মার্চ সকাল ৯টায় উপজেলার দয়ামীর ইউপির খাগদিওর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় নির্যাতিতা শিশুর মা বাদী হয়ে ওসমানীনগর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে কটাই মিয়াকে আসামী করে মঙ্গলবার(২৬ মার্চ) একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-১৬।

ধর্ষক কটাই মিয়া

পুলিশ ও নির্যাতিতার পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত ২৩ মার্চ নির্যাতিতা শিশু-সহ তার আরো ২ ভাই-বোনকে বাড়িতে রেখে তাদের মা পাশের বাড়িতে ঝি-এর কাজ করতে যান। সকাল ৯টার দিকে নির্যাতিতা শিশুটি বাড়ির সামনের রাস্তায় বের হলে লম্পট কটাই মিয়া বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে তার বসত ঘরের দরজা বন্ধ করে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে এবং বিষয়টি কাউকে জানালে তাকে প্রানে হত্যার হুমকিও দেয়।

নির্যাতিতার মা জানান, আমার স্বামী নেই। অনেক কষ্টে মানুষের ঘরে ঝি’য়ের কাজ করে সন্তানদের লালন পালন করছি। আমার এই শিশু কন্যাটির ইজ্জত নষ্ট করেছে কটাই মিয়া। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই। লম্পট কটাই মিয়াকে গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, ধর্ষক কটাই মিয়া এর আগে আরোও ২জন মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। তিনি ধর্ষক কটাই মিয়ার সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী করেন।

ওসমানীনগর থানার ওসি এস এম আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন এবং আসামীকে গ্রেফতারের পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে বলেও জানান।

শেয়ার করুনঃ