রাজধানীর বনানীর ১৭ নম্বর রোডের এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ আগুন লেগেছে। আজ দুপুর ১টার দিকে এফ আর টাওয়ারের ৯তলায় অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। পরে তা ছড়িয়ে পড়ে পুরো ভবনে।

ভয়াবহ আগুন ও ধোঁয়ায় ভবনটির ভিতরে বহু মানুষ আটকা পড়েছেন বলে জানা গেছে। তারা বাঁচার আকুতি জানাচ্ছেন বলে জানান প্রতক্ষ্যদর্শীরা।

ভবনে সিঁড়ি লাগিয়ে আমাদের উদ্ধারের চেষ্টা করুন বলে চিৎকার করছেন আটকা পড়া মানুষজন। আমরা ধোঁয়ার কারণে নিশ্বাস নিতে পারছি না। ধোঁয়ায় আমরা মারা যাব। আমাদের বাঁচান।

এসময় অনেককেই জীবন বাঁচাতে ভবন থেকে নিচে লাফিয়ে পড়তে দেখা গেছে।

আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের অন্তত ১৩টি ইউনিট। বহু হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আগুনে পুড়ে ভবনের গ্লাসগুলো খসে পড়ছে। আশপাশের লোকজন জড়ো হয়েছেন ভবনের আশপাশে। বনানী সড়ক বন্ধ রয়েছে। চারদিকে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

প্রাণ বাঁচাতে হুড়োহুড়ি করে নামতে গিয়ে বেশ কয়েকজন আহতও হয়েছেন। আগুন লাগার কারণ এখনও জানাতে পারেননি ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

ল্যাডার ইউনিট (বহুতল ভবন থেকে উদ্ধারকারী সিঁড়ি) ও মোটরসাইকেল ইউনিটও উদ্ধারকাজে অংশগ্রহণ করেছে।

ওপর থেকে হেলিকপ্টার দিয়েও আটকে পড়া মানুষদের উদ্ধার করার চেষ্টা চলছে।

জানা গেছে, ভবনটিতে দ্যা ওয়েভ গ্রুপ, হেরিটেজ এয়ার এক্সপ্রেস, আমরা টেকনোলজিস লিমিটেড ছাড়াও অর্ধশতাধিক অফিস রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী রায়ান খান বলেন, আমরা তিন-চারজন নিচে দাঁড়িয়ে নাস্তা করছিলাম। ভবনটির নবম তলায় প্রচুর ধোঁয়া বের হতে দেখি। এর পর ভয়াবহ আগুন জ্বলতে দেখি। এসময় অনেককে জীবন বাঁচাতে ভবন থেকে লাফিয়ে পড়তে দেখা যায়। তখন ৯৯৯ এ ফোন দেই। এসময় অনেকেই ফায়ার সার্ভিসে ফোন দেন। ফোন দেয়ার ককয়েক মিনিটের মধ্যে ফায়ার সার্ভিসের একাধিক ইউনিট সেখানে উপস্থিত হয়।

তবে ভেতরে অনেকে আটকা পড়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ভবনের অনেকেই নিচে নেমে অবস্থান নিয়েছে বলে জানিয়েছেন ভবনের নিরাপত্তারক্ষাকর্মীরা।

শেয়ার করুনঃ