কুশিয়ারা নিউজ ডেস্কঃ সিলেটে কেবল একজনই নয়, বরং রয়েছেন একাধিক করোনা আক্রান্ত রোগী। কেননা করোনা এমনই একটি ভাইরাস যা কারো সংস্পর্শে না গেলে ছড়ায় না। তাহলে প্রশ্ন হলো সিলেটের ওই করোনা আক্রান্ত রোগীর শরীরে এ ভাইরাস আসলো কিভাবে?

উল্লেখ্য, রোববার (৫ এপ্রিল) সিলেটে প্রথমবারের মতো করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়। সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান জানান, আক্রান্ত ওই ব্যক্তির বাসা লকডাউন করা হয়েছে। তার পরিবারের সদস্যদেরও নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

এদিকে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ওই ব্যক্তি সাম্প্রতিক সময়ে বিদেশিদের সংস্পর্শে আসেননি। এরকম অবস্থায় তিনি কিভাবে আক্রান্ত হলেন, তা নিয়ে উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে।

এখন কথা হলো আক্রান্ত ওই ব্যক্তি বিদেশি কারো সংস্পর্শে না গিয়ে থাকলে উনার শরীরে কিভাবে ভাইরাসের আগমন ঘটলো? তাহলে কী উনি দেশের কারো সংস্পর্শ থেকে ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন? এমন প্রশ্ন সিলেটের সচেতন মহলের।

একথা নিশ্চিত যে, তিনি প্রবাসী হোক কিংবা স্থানীয় হোক, একজন না একজনের সংস্পর্শে এসেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাহলে অপর ব্যক্তিটি কে? প্রশ্নটি এখানেই থেমে যায়। কেননা এর উত্তর কারো জানা নেই।

এ প্রশ্নেই উদ্বেগ আর উৎকন্ঠা বাড়ছে সিলেটবাসীর মধ্যে। কারণ, অপর ব্যক্তি যে-ই হোন, হয় তিনি তার করোনায় আক্রান্তের কথা গোপন করছেন, নয়তো তিনি জানেনই না তার শরীরে ভাইরাস রয়েছে। আর তাতেই তিনি হয়তো অসংখ্য লোকের সংস্পর্শে এসে নিভৃতে ছড়াচ্ছেন প্রাণঘাতী এই ভাইরাস।

এদিক দিয়ে চিন্তা করলে একটি তথ্যই উঠে আসে, আর তা হলো সিলেটে কেবল একজনই নয়- রয়েছেন একাধিক করোনা আক্রান্ত। বিষয়টি পুরো সিলেটের জন্য বিপজ্জনকও বটে!

শেয়ার করুনঃ