স্বেচ্ছাসেবী যুবকরা বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেন এ খাদ্য সামগ্রী।

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধিঃ করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে লকডাউন ও সরকারের নির্দেশনায় কর্মহীন হয়ে পড়েছেন অধিকাংশ মানুষ। কর্মহীন হয়ে পড়া এসব মানুষদের মধ্যে চরম সঙ্কটে পড়েছেন খেটে খাওয়া দিনমজুর ও নিম্ন আয়ের মানুষজন। সঙ্কটে পড়া এসব মানুষদের কষ্ট লাগবে সরকারের পাশাপাশি এগিয়ে এসেছেন সমাজের বিত্তবান দানশীল ব্যক্তিবর্গ।

তেমনি গোলাপগঞ্জের চন্দরপুর গ্রামের অসচ্ছল মানুষদের পাশে দাড়িয়েছেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী, বিশিষ্ট সমাজসেবক আতিকুর রহমান। তার নিজস্ব অর্থায়নে ও সেচ্ছাসেবীদের সহযোগিতায় গ্রামের ৪ শতাধিক পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) সকাল থেকেই জনসমাগম এড়িয়ে অসচ্ছল পরিবারের ঘরে ঘরে এ খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন গ্রামের স্বেচ্ছাসেবী যুবকরা। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিল ১৫ কেজি চাল, ১কেজি ডাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি পিয়াজ, ১ লিটার তেল ও ১ কেজি করে লবণ।

বিতরণকালে সেচ্ছাসেবী কামাল আহমদ, সুহেল আহমদ ও সুলতান মাহমুদ উদ্যোক্তাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, নিম্ন আয়ের মানুষজন বর্তমানে কঠিন সময় পার করছেন। কাজ না থাকায় খাদ্য সংকটে ভুগছেন তারা। এসব মানুষদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেয়ায় কষ্ট লাগবের পাশাপাশি তাদেরকে ঘর থেকে বের হওয়ারও প্রয়োজন পড়বে না। ফলে মহামারী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকিও হ্রাস পাবে।

এব্যাপারে ফোনকলের মাধ্যমে আতিকুর রহমান বলেন, বর্তমানে করোনার কঠিন পরিস্থিতে কর্মহীন মানুষজন বেশ দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। তাদের কষ্ট লাগবে সমাজের সকল বিত্তবানদের এগিয়ে আসা উচিৎ। তাছাড়া এসব অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়ালে আত্মতৃপ্তি মিলে। নিজের এই উপলব্ধি থেকেই তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি।

এসময় তিনি সমাজের সকলকে যার যার অবস্থান থেকে অসচ্ছল মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান।

খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে আরোও উপস্থিত ছিলেন, জিলু মিয়া, ফরহাদুর রহমান, মিসবাহ উদ্দিন, সুহেল আহমদ, সুজেল আহমদ, রেজওয়ান আহমদ, জুনেদ আহমদ ও মাঈন উদ্দিন প্রমুখ।

ভিডিওঃ

শেয়ার করুনঃ