নিজস্ব প্রতিবেদক : ওষুধের গাড়িতে করে নারায়ণগঞ্জ থেকে বিশ্বনাথে এসেছেন ১৩ জন নারী-পুরুষ ও শিশু। বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) ভোরে লুকিয়ে উপজেলায় প্রবেশের সময় জনতার হাতে আটকা পড়েন তারা।

পরে বিশ্বনাথ থানা পুলিশ ওই গাড়ির ভেতর থেকে ১৩ নারী, পুরুষ ও শিশুকে উদ্ধার করে।

এঘটনায় বিশ্বনাথজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সেহরির সময় ওই এলাকায় মেসার্স রূপা এন্টারপ্রাইজ (ঢাকা মেট্রো-ড, ১৪-৬০২৪)-এর একটি ভ্যান প্রবেশ করলে স্থানীয় জনতা তার গতিরোধ করেন। কাভার্ড ভ্যানটি ঢাকার নারায়ণগঞ্জ থেকে ১৩ জন যাত্রী নিয়ে আসে। তারা সবাই বিশ্বনাথ উপজেলার বাসিন্দা। তারা নারায়ণগঞ্জের আড়াই হাজারের একটি ইটভাটায় কাজ করতেন। কাজ না থাকায় ওই ভ্যানে করে বাড়ি ফিরেন তারা।

এ সময় স্থানীয়দের সন্দেহ হলে ভ্যানটি আটক করে তারা পুলিশে খবর দেন। তখন চালক পালিয়ে যান। পরে ভ্যানের দরজা খোলা হলে ভেতর থেকে বেরিয়ে আসেন ৯ জন নারী-পুরুষ ও ৪ শিশু।

বিশ্বনাথ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শামীম মুসা জানান, নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা নারী, পুরুষ ও শিশুদের বিশ্বনাথের নিজ নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে এবং পুলিশের পক্ষ থেকে খাদ্যসামগ্রীও দেয়া হয়েছে। আর কাভার্ড ভ্যানটি বিশ্বনাথ থানায় রাখা আছে, চালক এখনও পলাতক।

শেয়ার করুনঃ