ফেঞ্চুগঞ্জ, প্রতিনিধি:: আজ ১০ই রমজান, ১৪৪১ হিজরী, রোজ সোমবার, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম আরফান আলীর ৩৮ তম মৃ’ত্যুবার্ষিকী, এ উপলক্ষে বিভিন্ন মহল শোক প্রকাশ করেছেন।

এ গুণীজন, বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ সমাজ সংস্কারক, দক্ষ ন্যায়বিচারক এবং বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী মরহুম “আরফান আলী”কে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করতে ভুলেনি উপজেলার সর্বসাধারণ-সহ উনার আত্মীয়স্বজন ও শুভানুধ্যায়ী।

মরহুম আরফান আলীর ৩৮ তম মৃ’ত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে উনার পুত্র বদরুজ্জামান বলেন আমার পরম শ্রদ্ধেয় পিতা বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, সমাজ সংস্কারক, দক্ষ ন্যায়বিচারক এবং বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী মরহুম “আরফান আলী”কে অত্যন্ত ভারাক্রান্ত হৃদয়ে গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। তিনি ছিলেন আর্তমানবতার মূর্ত প্রতীক, তাই আজ দেশ ও জাতির এই ক্রান্তিলগ্নে তাঁকে খুব বেশী মনে পড়ছে। রাজনৈতিক জীবনের শুরুতেই তিনি ছিলেন নিখিল ভারত কংগ্রেসের সক্রিয় সদস্য। তিনি ব্রিটিশ বিরোধী স্বদেশী আন্দোলনে বৃহত্তর সিলেট তথা অবিভক্ত আসাম বেঙ্গলের একজন সক্রিয় সদস্য ছিলেন।

দেশ বিভাগের পর কালের পরিক্রমায় এবং রাজনৈতিক পট পরিবর্তনে আওয়ামী লীগের জন্মলগ্ন থেকেই তিনি বৃহত্তর সিলেট জেলা(বর্তমানে সিলেট বিভাগ) এর আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পর অত্যন্ত দক্ষতার সাথে আজীবন কাজ করে গেছেন। নিজ এলাকা ফেঞ্চুগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি হিসেবে আজীবন অত্যন্ত নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করে গেছেন। ১৯৭০ সালের ঐতিহাসিক নির্বাচনে তিনি বাঙ্গালী জাতির গর্ব কর্নেল এম, এ,জি, ওসমানির জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে প্রধান পরামর্শক, পর্যবেক্ষক, পরিচালক ও প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্ব অত্যন্ত সফলতার সাথে পালন করেন এবং আমৃত্যু জেনারেল এম,এ,জি,ওসমানির গভীর সান্নিধ্যে অবশিষ্ট জীবন কাটিয়েছেন।

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে বৃহত্তর সিলেট জেলার মুক্তিযুদ্ধের একজন সংগঠক হিসেবে জেলা আওয়ামীলীগকে সুসংগঠিত করে নিজ দায়িত্বে সিলেট জেলার ৬ জন এম,এন,এ ওএম,পিকে সাথে নিয়ে তাঁরই নেতৃত্বে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশ গ্রহণ করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ ও গোলাপগঞ্জ সহ তিন থানার মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রধান সমন্বয়কের মহান দায়িত্ব অত্যন্ত নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে পালন করেছেন। স্বাধীনতা উত্তর সময়ে ফেঞ্চুগঞ্জ থানার আর্বিট্রেশন কোর্টের চেয়ারম্যান হিসেবে অত্যন্ত দক্ষতা ও পারদর্শীতার সাথে পালন করেছেন। যার ফলশ্রুতিতে বিচার কার্যে তাঁর সুক্ষ্ণ বিশ্লেষণী পারদর্শীতার জন্য তিনি সিলেট জেলা দায়রা জজ আদালতের জুরী বোর্ডের সম্মানিত সদস্য নির্বাচিত হয়ে আজীবন অত্যন্ত নিষ্ঠা ও পারদর্শীতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন।

শেয়ার করুনঃ