গোলাপগঞ্জে একদিনেই ১৪ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস ধরা পড়েছে। এর মধ্যে ১৩ জনই টিকরবাড়িতে আক্রান্ত বৃদ্ধের সংস্প’র্শে এসে আক্রা’ন্ত হয়েছেন, তারা একই বাড়ির বাসিন্দা। অপরজন আমুড়া ইউনিয়নের সুন্দিশাইল গ্রামের। এনিয়ে গোলাপগঞ্জ উপজেলায় করোনা রোগী বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১ জনে।

শনিবার রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মনিসর চৌধুরী।

তিনি বলেন, পৌর এলাকার টিকরবাড়ি এলাকার করোনা ভাইরাসে আক্রা’ন্ত বৃ’দ্ধের সংস্প’র্শে আশা ৪২ জনসহ মোট ৫৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করে আমরা সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে প্রেরণ করলে এর মধ্যে ১৪ জনের করোনা পজেটিভ আসে। এরমধ্যে টিকরবাড়ি এলাকার ১৩ জন ও আমুড়া ইউনিয়নের সুন্দিশাইল গ্রামের ১জন। টিকরবাড়ি এলাকায় শনাক্ত হওয়া ১৩ জনই একই বাড়ির বাসিন্দা। এই বাড়ির এক বৃদ্ধের আগে করোনা শনাক্ত হয়েছিলো।

এদিকে টিকরবাড়ির ১৩ জন করোনা আক্রা’ন্ত হওয়া বাড়িটি আগেই লকডাউন করা হয়েছে। সুন্দিশাইল গ্রামের ১জনের বাড়ি লকডাউন ও তাদের পরিবারের নমুনা সংগ্রহ করা হবে বলেও জানান তিনি।

শেয়ার করুনঃ