৬ জুন ৪র্থ বর্ষে পা রাখলো সামাজিক সংগঠন ‘স্বাপ্নিক বাংলাদেশ’। সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের পাশে আমরা এই মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে ২০১৭ সাল থেকে যাত্রা শুরু হয় স্বাপ্নিক বাংলাদেশ নামক এই সামাজিক সংগঠনের। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে সুবিধাবঞ্চিত অসহায় মানুষ এবং পথ শিশুদের নিয়ে নানা পদক্ষেপ স্বাপ্নিকের পরিচিতি অনেকদূর নিয়ে গেছে। বিশেষ করে অসহায় পরিবারের মধ্যে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ, পথ শিশুদের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ, ঈদের নতুন পোষাক বিতরণসহ নানা ধরণের সামাজিক কার্যক্রম।

এরপর বিভিন্ন মহলের প্রসংশায় তাদের কাজের গতি আরো বাড়তে থাকে। আর এভাবেই এগুতো থাকে তাদের পথচলা।

এদিকে ৪র্থ বর্ষে পদার্পন উপলক্ষে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য অমি বলেন, “স্বাপ্নিক বাংলাদেশ” সমাজের সুবিধাবঞ্চিত অসহায় জন্য কাজ করতে সর্বদা বদ্ধপরিকর। এই সংগঠনের প্রতিটি কর্মী সততা ও আন্তরিকতার সাথে হতদরিদ্রদের পাশে দাড়াচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, আমাদের ইচ্ছা ছিল প্রতিষ্ঠানবার্ষিকী উদযাপন করার। কিন্তু করোনা ভাইরাসের সংক্রামন এড়াতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা উচিত। তাই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা চিন্তা করে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, কোন ধরণের অনুষ্ঠান না করার।

এসমময় তিনি সবাইকে বাসায় থাকতে এবং জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হওয়া থেকে বিতর থাকতে অনুরোধ করেছেন। পাশাপাশি সমাজের অসহায় মানুষের পাশে বিত্তবানদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য তিনি আহবান জানান ।

শেয়ার করুনঃ