আফ্রিকার দেশ বুরুন্ডির প্রেসিডেন্ট পিয়েরে এনকুরুনজিজা করোনাভাইরাসে মারা গেছেন বলে দাবি করেছেন চিকিৎসকরা। মৃত্যুর পর তাকে যে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল সেই হাসপাতালের চিকিৎসকরা এ দাবি করেছেন। ১৩ জুন ডেইলি মেইল এ খবর প্রকাশ করেছে। মৃত্যুর আগে শ্বাসকষ্টে ভুগেছিলেন প্রেসিডেন্ট পিয়েরে।

গত ৮ জুন মৃত্যুবরণ করেন তিনি। এরপর ৯ জুন প্রেসিডেন্টের মৃত্যু হৃদরোগে হয়েছে বলে জানায় সরকার। প্রায় এক সপ্তাহ পর চিকিৎসকরা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্টের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। খবর এএফপির।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, মৃত্যুর আগে শ্বাসকষ্টে ভুগেছেন ৫৬ বছর বয়সি প্রেসিডেন্ট পিয়েরে। এর আগে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে এনকুরুনজিজার মৃত্যু হয়েছে বলে বুরুন্ডি সরকার জানিয়েছিল। গত ৯ জুন সরকারের পক্ষ থেকে হঠাৎ করে প্রেসিডেন্টের মৃত্যর খবর প্রচার করে দেশে সাতদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করা হয়।

প্রয়াত প্রেসিডেন্টের স্ত্রী গতমাসের শেষদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলন। তাই ধারণা করা হচ্ছিল, প্রেসিডেন্ট নিজেও এই প্রাণঘাতী রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

পূর্ব ঘোষিত এক পরিকল্পনা অনুযায়ী, ১৫ বছর দায়িত্ব পালনের পর আগামী আগস্ট মাসে প্রেসিডেন্ট পিয়েরের ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ানো করার কথা ছিল। বুরুন্ডিতে গত ২০ মে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী ও সাবেক সেনাপ্রধান এভারেস্টে এন্ডিশিমি বিজয়ী হন। তিনিই এবার দায়িত্ব গ্রহণ করবেন বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুনঃ