ফেঞ্চুগঞ্জ প্রতিনিধি: সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পেলেও অধিকাংশ মানুষ বাইরে মাস্ক ছাড়াই অবাধে চলাফেরা করছেন। ফলে করোনার ঝুঁকি বাড়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

ফেঞ্চুগঞ্জ থানার রোড এলাকার বিভিন্ন স্থানে বেশিরভাগ মানুষকে দেখা গেছে মাস্কহীন অবস্থায়। তারা মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি। উপচেপড়া ভিড়ের মধ্যে গায়ে গা ঘেঁষে চলাচল করছেন জনসাধারণ। করোনায় ভয়াবহতার ঝুঁকি থাকলেও স্বাস্থ্যবিধি কিংবা শারীরিক দূরত্ব মানছেন না কেউ। মাস্কহীন ঈদের শপিং নিয়ে ব্যস্থ সাধারণ মানুষ। দোকান গুলোতে উপচেপড়া ভিড়।

গত৩১ মে থেকে লাকডাউন তুলে দেওয়ায় হাট-বাজার, গণপরিবহন কোথাও যেন করোনার ভয় নেই। যদিও সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী সামাজিক দুুরত্ব ও স্বাস্থ্য বিধিমেনে চলার কথা থাকলেও সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই যত্রতত্র চলাচল করছেন এ উপজেলার মানুষজন। সামাজিক দুুরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষথেকে টহল ও সচেতনতামূলক মাইকিং অব্যহত রয়েছে। উপজেলা প্রশাসন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা জরমিানা আদায় করলেও মানা হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি ও সচেতনতা।

বুধবার (২২ জুলাই) সরেজমিনে উপজেলার থানার রোড এলাকার বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা যায়, স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দুরত্ব না মেনে হাট, বাজার, গণপরিবহনগুলোতে ছিলো উপচেপড়া ভীড়।

এদিকে ফেঞ্চুগঞ্জে প্রতিনিয়তই বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা তার পরেও স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দুরত্ব না মেনে অবাধে চলাচল করায় আশঙ্কা হারে করোনা ভাইরাসের সংক্রাম ঘটতে পারে ফেঞ্চুগঞ্জে। এখনই করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে প্রশাসনের কঠোর নজরদারির দাবি জানিয়েছেন উপজেলার সচেতন মহল।

শেয়ার করুনঃ