দক্ষিণ সুরমার রশিদপুরে গোল চত্তর নির্মাণ করে তাতে ট্রাফিক নিয়োগ দিতে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী। ইতিমধ্যে এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী গোলচত্তর নির্মাণের ব্যাপারে সর্বস্তরের জনসাধারণকে ঐক্যবদ্ধ করতে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। দীর্ঘদিন যাবত এ দাবীটি বাস্তবায়ন না হওয়ায় এলাকাবাসী আন্দোলনের দিকে অগ্রসর হচ্ছেন বলে বিশ্বস্তসূত্রে জানা যায়।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও সিলেট-বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়কের রশিদপুর একটি জনগুরুত্বপূর্ণ ও জনবহুল যোগাযোগের মাধ্যম। এ স্থান দিয়ে প্রতিদিন অগণিত যাত্রী সাধারণ যাত্রায়াত করে থাকেন। এখানকার সড়ক দূর্ঘটনা প্রতিরোধে এলাকাবাসী স্বাধীনতা পরবর্তী সময় থেকে আজ পর্যন্ত রশিদপুরে গোলচত্তর নির্মাণের দাবী জানালেও প্রশাসন কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। ফলে প্রায়ই এখানে দূর্ঘটনায় কবলিত হয়ে প্রাণ হারান অনেকেই। গত ২০ ডিসেম্বর দুপুরে রশিদপুর পয়েন্টে হবিগঞ্জ পরিবহনের সাথে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংর্ঘষে ২ তরুণ প্রাণ হারান। শুধু এ দূর্ঘটনা নয়, এখানে প্রায়ই দূর্ঘটনা হওয়ার কারনে এলাকাবাসীকে সব সময় শংকিত থাকতে হয়। ঝুকিপূর্ণ এ স্থানের পশ্চিমমূখি বিশ্বনাথ সড়কের পাশে রশিদপুর সিএনজি স্টেশন, অন্য পাশে দাড়িয়ে থাকে এলাকায় চলাচলকারী রিকশা ও অন্যান্য গাড়ী।

তাছাড়া রশিদপুর পয়েন্টে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা বিশ্বনাথ, জগন্নাথপুর এলাকার যাত্রী সাধারণ এখানেই অবতরণ করে থাকেন। ফলে এ পয়েন্টে সব সময় মানুষ এবং পরিবহণের জটলা লেগে থাকে। তাই এ স্থানে সড়ক দূর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে চত্তর নির্মাণ অতিব জরুরী হয়ে দাড়িঁয়েছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ পয়েন্টে গোল চত্তর নির্মাণের দাবী জানানো হয়েছে। পাশাপাশি এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে ব্যাপক আন্দোলনেরও প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে আলাপকালে রশিদপুর অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ফিরোজ মিয়া বলেন, রশিদপুরে গোল চত্তর নির্মাণ ছাড়া দূর্ঘটনা প্রতিহত করা সম্ভব নয়। প্রাণ রক্ষার্থে এ স্থানে গোলচত্তর নির্মাণ করা জরুরী। তিনি এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী গোলচত্তর নির্মাণে সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

রশিদপুর এলাকার বিশিষ্ট সমাজসেবী ও ব্যবসায়ী দয়াল উদ্দিন তালুকদার জানান, রশিদপুর একটি জনগুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট। এ স্থানে দূর্ঘটনার আশংকা বেশি থাকে। প্রায়ই দূর্ঘটনা হওয়ার ফলে এলাকার অধিবাসীরা আতংকিত। তিনি রশিদপুরে গোলচত্তর নির্মাণে প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

লালাবাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পীর ফয়জুল হক ইকবাল বলেন, জনগুরুত্বপূর্ণ রশিদপুর পয়েন্টে যান মাল রর্ক্ষাথে গোল চত্তর নির্মাণের প্রয়োজন। তিনি এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী চত্তর নির্মাণে সংশ্লিষ্টদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।

এব্যাপারে সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী রিতেশ বড়ু–য়ার সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

শেয়ার করুনঃ