নানা বয়সের হাজারও মানুষের অংশগ্রহণে সিলেটে সম্পন্ন হয়েছে হাফ ম্যারাথন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মাদক, জঙ্গি ও সন্ত্রাসবিরোধী এই হাফ ম্যারাথনের আয়োজন করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব) ও সিলেট রানার্স কমিউনিটি।
র‌্যাবে ফোর্সেস সিলেট হাফ ম্যারাথন-২০২১’ নামে এই প্রতিযোগিতা নগরের কিনব্রিজ এলাকা থেকে শুরু হয়ে লাক্কাতুরা এলাকার সিলেট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।

প্রতিযোগিতার শুরুতে অংশ নেয়া সকল প্রতিযোগিকে মাদক, জঙ্গি ও সন্ত্রাসবিরোধী শপথ পাঠ করান র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার।
মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদবিরোধী ‘হাফ ম্যারাথন’ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘আমি জঙ্গিবাদ, সকল জঙ্গি, সকল সন্ত্রাসী এবং সকল মাদকাসক্ত, সকল মাদক ব্যবসায়ীদের হুঁশিয়ার করে দিতে চাচ্ছি, শুধুমাত্র আমরা যে জনমত গঠনের মাধ্যমে বলবো যে আপনারা (সুপথে) ফিরে আসেন ফিরে আসেন, তা কিন্তু নয়। আমরা কিন্তু আমাদের সাঁড়াশি অভিযানের মাধ্যমে জঙ্গিবাদী, সন্ত্রাসবাদী এবং মাদকাসক্ত, মাদক ব্যবসায়ী, অস্ত্রব্যবসায়ীদেরকে সমূলে উৎপাটনের জন্যে আভিযানিক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।’
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী তথা মুজিববর্ষ উপলক্ষে ‘র‌্যাব ফোর্সেস সিলেট হাফ ম্যারাথন-২০২১’ নামে এই ম্যারাথন শুরু হয়ে শুরু হয়ে শহরতলির লাক্কাতুরাস্থ সিলেট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।
পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সিলেট-১ আসনের সাংসদ ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।
অনুষ্ঠানে মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক বক্তব্য দেন বাউল কালা মিয়া, অভিনেতা ওমর সানী, রিয়াজ, সিয়াম, অভিনেত্রী মৌসুমী, মাহিয়া মাহি প্রমুখ।

বক্তব্য রাখেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মশিউর রহমান এনডিসি, এসএমপি কমিশনার নিশারুল আরিফ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম নাদেল, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খান, র‌্যাব-৯ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আবু মুছা শরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম সহ প্রশাসনের বিভিন্ন উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।
সিলেট র‌্যাব-৯ এর এএসপি (গণমাধ্যম) ওবাইন জানান, মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে সিলেটের স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। বিশেষ করে স্কুল-কলেজে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের মাঝে মাদকাসক্তির ঝুঁকি বেশি থাকে।
সেটিকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে আমরা মাদকবিরোধী এ উদ্যোগ হাতে নিয়েছি। যাতে শিক্ষার্থীদের মাঝে মাদকবিরোধী মনোভাব তৈরি হয়। যুব সমাজ যেন মাদকে না জড়ায় সে চেষ্টা র‌্যাব শুরু থেকে করে আসছে। এবারের মাদকবিরোধী এ ক্যাম্পেইন প্রচার প্রচারণার মাধ্যমে আমরা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে চাই।

শেয়ার করুনঃ