শিক্ষকদের টিকা দেয়ার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে আর কোনো সমস্যা থাকবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

তিনি বলেন, আগামী সপ্তাহ থেকে অনাবাসিক ও আবাসিক শিক্ষকদের করোনার টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হবে। সে জন্য নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শিক্ষকদের টিকা দিয়ে স্কুল-কলেজ খোলা হবে। ধাপে ধাপে শিক্ষার্থীদেরও টিকার আওতায় আনা হবে।

বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে প্রথম ভাইস-চ্যান্সেলর’স অ্যাওয়ার্ড প্রদান ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষাব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আনা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা ডিগ্রি অর্জন করে চাকরির পেছনে ছুটতে শুরু করে। মনে হয় যে তারা চাকরি পাওয়ার জন্য পড়ালেখা করে, সেটি তাদের একমাত্র লক্ষ্য। এ ধারণা থেকে আমাদের শিক্ষার্থীদের বের করে আনতে চাই। এ জন্য অনেক পরিবর্তন আনা হচ্ছে। শিক্ষার্থীরা ডিগ্রি নিয়ে যেন বের হওয়ার সঙ্গে তাদের দক্ষ, জ্ঞান ও মানবিকতা নিয়ে বের হতে পারে।

অনুষ্ঠানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, দেশের ২৮ লাখ শিক্ষার্থীর উচ্চশিক্ষা নেয়ার প্রয়োজন রয়েছে কিনা তা ভাবতে হবে। আমাদের অর্থনীতিতে অদক্ষ ডিগ্রিধারীদের চাহিদা আছে কিনা তা নিয়ে দেখতে হবে।

তিনি বলেন, সবার জন্য উচ্চশিক্ষার দ্বার খোলা রাখতে হবে। কায়িকশ্রম বিশিষ্ট শিক্ষা ও দক্ষ প্রদান করা আমাদের বেশি জরুরি হয়ে পড়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

শেয়ার করুনঃ