সিলেটে মুখে ওড়না বেঁধে গৃহবধূ ধর্ষণ

সিলেটে মুখে ওড়না বেঁধে গৃহবধূ ধর্ষণ


সিলেটে মুখে ওড়না দিয়ে বেঁধে এক গৃহবধূ (২১) ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) রাতে বিমানবন্দর থানাধীন এলাকায় আমিনুর রহমান আমির নামের এক যুবক ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করেন।

এ ঘটনায় গৃহবধূ বিমানবন্দর থানায় আমির নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ জানায়, প্রায় ১৫ দিন পূর্বে গোয়াইনঘাট এলাকা থেকে বিমানবন্দর এলাকাস্থ পিত্রালয়ে এক সন্তানকে নিয়ে বেড়াতে আসেন গৃহবধূ। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে গৃহবধূর পিতা-মাতা তাকে বাসায় একা রেখে তার তিন বছরের সন্তানকে সাথে নিয়া ধোপাগুলস্থ তাদের রেষ্টুরেন্টে চলে যান। রাত আনুমানিক ৮টা ১৫ মিনিটে গৃহবধূ প্রকৃতির ডাকে ঘর হতে বের হয়ে পূনরায় ঘরের ভেতরে এসে ঘরের দরজা বন্ধ করেন এবং বিছানায় যান। এসময় আমিনুর রহমান আমির গৃহবধূকে বিছানার উপর ঝাপটে ধরে। তখন গৃহবধূ চিৎকার করার চেষ্টা করলে আমির তার ওড়না দিয়ে মুখে চাপ দিয়ে ধর্ষণ করে। রাত ৯টার দিকে গৃহবধূর পিতা-মাতা বাড়ীতে এসে ঘরের দরজা খোলার জন্য ডাকাডাকি করলে তখন আমির গৃহবধূকে ছেড়ে দিয়ে পিছনের দরজা খুলে পালিয়ে যায়। ভিকটিমের দরজা খুলতে দেরি হওয়ায় এবং পিছনের দরজা খোলার শব্দ পেয়ে তার পিতা-মাতা বিবাদী আমিরকে দৌড়ে পালিয়ে যেতে দেখতে পান।

মহানগর পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার আশরাফ উল্যাহ তাহের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, গৃহবধূ গোয়াইনঘাট থেকে প্রায় ১৫ দিন পূর্বে বিমানবন্দর থানাধীন এলাকাস্থ তার পিত্রালয়ে আসেন বেড়ানোর জন্য। বৃহস্পতিবার ওই গৃহবধূকে আমির নামের এক যুবক ধর্ষণ করেছে বলে গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে ধর্ষণের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ আসামীকে গ্রেফতার করার জন্য অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

Previous Post Next Post